বুদ্ধদেব গুহ একজন সার্থক অরণ্য প্রেমিক, বিচিত্র অভিজ্ঞতায় ভরপুর তার জীবন। বহু দেশ বিদেশ ঘুরে বেড়িয়েছেন তিনি কিন্তু যেটা তাকে মূল আকর্ষিত করে তা হলো বনজঙ্গল, পশুপাখি, ফুল প্রকৃতির নানা রূপ ও জঙ্গলের মানুষের জীবন যাত্রা, এগুলো তার মনকে প্রভাবিত করে, এবং যেখানে খুঁজে পান তার লেখার রসদ। এবং তিনি মনে করেন যে সাহিত্য রচনায় মস্তিষ্কের তুলনায়, হৃদয়ের অনুভূতির যে টান তার ভূমিকা অনেক বড় । তিনি উপলব্ধি করেন একজন নারীর যেমন রাগ অভিমান, ভালোলাগা সুখ দুঃখ আনন্দ এই সব নিয়ে যে একটা অনুভূতি থাকে, তিনি ঠিক সেই ভাবেই প্রকৃতিকে একজন নারীর সাথে বারবার বর্ণনা করেছেন তার বিভিন্ন উপন্যাসের মাধ্যমে ,তার উপন্যাস গুলির মধ্যে যেমন,কোজাগর,একটু উষ্ণতার জন্য, জঙ্গলের জার্নাল, চান ঘরে গান, চার কন্যা, হলুদ বসন্ত, এবং সারা জাগানো উপন্যাস মধুকরী, এবং বহু উপন্যাস তার মধ্যে আরো ছিল ছোটদের জন্যে ঋজুদার সঙ্গে জঙ্গলে লিখে পেলেন আনন্দ পুরস্কার ১৯৭৭ সালে । রবীন্দ্র সংগীতের প্রতি তার গভীর অনুরাগ লক্ষ করা যায় , তিনি নিজেও গাইতে ভালবাসেন ।তিনি এমনই একজন সাহিত্যিক যিনি পৃথিবীর বুকে প্রকৃতির যা কিছু সৃষ্টি, তার দৃষ্টি ও হৃদয় দিয়ে সবটাই উপলব্ধি করতে চেয়েছেন

Filter

End of content

No more pages to load

Quick Navigation
×
×

Cart